প্রযুক্তি

সাম্প্রতিক সময়ে Bip (বিপ) অ্যাপ কেন এত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ? কি আছে অ্যাপটিতে?

সাম্প্রতিক সময়ে আপনি যদি পৃথিবীর ইন্টারনেট নির্ভর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো ব্যবহার করেন থাকেন, তাহলে একটি খবর অবশ্যই দেখতে পাবেন আর সেটা হল তুরস্কের তৈরি একটি ভিডিও কলিং ও মেসেজিং অ্যাপ। আর এই অ্যাপটির নাম হল BIP (বিপ)। আজ আমরা জানবো অ্যাপ টি মানুষের কাছে কেন এত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে?

প্রযুক্তির জগতে অনেকটা হঠাৎ করেই আলোড়ন সৃষ্টি করেছে তুরস্কের তৈরি এই 'বিপ' অ্যাপ।

বর্তমানে আমরা যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করে থাকি তারা হোয়াটসঅ্যাপ সম্পর্কে কমবেশি সবাই অবগত আছি, অ্যাপটি ভিডিও কলিং ও মেসেজিং সেবা প্রদান করে থাকে। এই অ্যাপটির ব্যবহারকারীরা যখন ব্যবহার করেন তখন অ্যাপটি তার ব্যবহারকারীদের তথ্যের গোপনীয়তা বজায় রাখে।ব্যবহারকারীদের তথ্যের গোপনীয়তা নিয়ে জনপ্রিয় যোগাযোগ মাধ্যম হোয়াটসঅ্যাপের ব্যবহারকারীদের মনে সন্দেহ সৃষ্টি হওয়ার কারণে বিকল্প হিসেবে তুরস্কের এই বিপ অ্যাপটি এখন অনেকে দেশে অতিশয় জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

এখন বাংলাদেশে বিপ অ্যাপের জনপ্রিয়তা কতটুকু এই প্রসঙ্গে কিছু কথা বলা যাক।

গুগল প্লে স্টোরে বাংলাদেশের যে ব্যবহারকারী গন Bip অ্যাপ ডাউনলোড করেছেন তাদের র‍্যাংকিং তথা বিশ্বের র‍্যাংকিং পর্যবেক্ষণ করে দেখা গিয়েছে যে বিপের ডাউনলোড মাত্র একদিনের ব্যবধানে ৯২ ধাপ এগিয়ে লিস্টে সবার উপরে উঠে এসেছে এমন তথ্য দিয়েছে বিবিসি।

বিপ অ্যাপ কেন এত জনপ্রিয়? আসুন জেনে নেওয়া যাক কিছু কারণ।

  • ইয়াহুর দুই সাবেক কর্মী ব্রায়ান অ্যাক্টন এবং জ্যান কুম ২০০৯ সালে হোয়াটসঅ্যাপ প্রতিষ্ঠা করেন। আর এই জনপ্রিয় হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাপটি ১৪ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে ২০১৪ সালে ক্রয় করে নেয় ফেসবুক, মূলত হঠাৎ করেই হোয়াটসঅ্যাপের এমন বিপর্যয় বিপ অ্যাপটির জনপ্রিয়তা গগনচুম্বী হতে সাহায্য করেছে।
  • বর্তমান সময়ে এরদোয়ান(তুরস্কের প্রেসিডেন্ট) এর জনপ্রিয়তার কথা আমরা সবাই অবগত আছি, তুরস্কের জন্য একের পর এক সাফল্য বয়ে এনেছে যে ব্যক্তি আমরা তার কথাই বলছি, বিপ অ্যাপ এখন অনেক উচ্চশিখরে রয়েছে, বিপ অ্যাপ এর সাফল্যের কারণ গুলো উল্লেখ করতে গেলে অবশ্যই এই ব্যক্তিটির নাম বলতে হয় কেননা তার একটি মাত্র আহবানে পৃথিবীর লক্ষ লক্ষ মুসলিম এই অ্যাপটি ব্যবহার করতে শুরু করেছে।

বিপ অ্যাপ কি নতুন?

অনেকের মনে প্রশ্ন আসতে পারে হঠাৎ করেই বিপ অ্যাপ লঞ্চ হওয়ার পর থেকেই এটি এমন আলোড়ন সৃষ্টি করেছে? কিন্তু আপনাদের অবগতির জন্য জানাতে চাই যে এটি কোন নতুন অ্যাপ নয়, অ্যাপটি সর্বপ্রথম লঞ্চ করা হয় ২০১৩ সালে। যদিও তৎকালীন সময়ে অ্যাপটি কোন কার্যকারিতা দেখাতে সক্ষম হয়নি কিন্তু অ্যাপটি নতুন সংস্করণের পর থেকেই এটি বিশ্বের মাঝে আলোড়ন সৃষ্টি করতে শুরু করেছে।

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *