খেলাধুলা

নতুন বছরের পুরনো রূপে সাকিব

নতুন বছরে মাঠে নামলেন খেললেন এবং জয় নিয়ে মাঠ ছাড়লেন। দীর্ঘ ১০ মাস পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাংলাদেশ দল। কিন্তু সাকিবের হিসাবটা অন্যরকম। দীর্ঘ বিরতির পর ফিরলেও সাকিবের পারফরম্যান্সে দর্শকের মন জয় করেছে। বিশ্বকাপে ব্যাট-বলে ছিলো ক্রিকেটের রাজা। আবার সেটার প্রমাণ করলেন মিরপুরে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে ৭.২ ওভারে ৮ রান খরচ করে নিলেন ৪ উইকেট।

২০১৯ বিশ্বকাপে ৮ ইনিংসে ৫ হাফসেঞ্চুরি ও ২ সেঞ্চুরিতে ৬০২ রান করেছেন এই সাকিব। ব্যাটিং গড় ছিল ৮৬.৫৭। ২০১৯ বিশ্বকাপের তৃতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন সাকিব। দীর্ঘ বিরতির পর এমন পারফরমেন্সে ভীষণ খুশি তিনি। প্রথম ইনিংস শেষে সাকিব দর্শকদের জানিয়েছে নিজের সাফল্যের রহস্য, “অতি সাধারণ একটি পরিকল্পনা ছিল। লাইন-লেংথ ঠিক রেখে সঠিক জায়গায় বল করেছি। উইকেটেও একটু সহায়তা ছিল।”দীর্ঘ বিরতির পর এরকম পারফরম্যান্স করাটা কোনো সহজ কাজ নয়। সাকিব জানালেন, ‘খুব ভালো লাগছে ভালো খেলেছি। তবে ১৬/১৭ মাস পর খেলতে নামাটা মোটেও সহজ নয়। সবাই একটু নার্ভাস ছিলাম, কারণ প্রায় দশ মাস কোনো আন্তর্জাতিক খেলা খেলিনি। তারপরও ম্যাচ খেলার আনন্দে ছিলাম।

করোনার কারণে প্রায় ১০ মাস আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে দূরে ছিল টাইগাররা। দীর্ঘ বিরতি থেকে ফেরার এমন একটি ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটসম্যানদের কোন সুযোগই দেয়নি বাংলাদেশ। কারণ প্রতিপক্ষের জন্য কঠিন হয়ে ওঠে মুস্তাফিজ, সাকিব ও অভিষিক্ত হাসান মাহমুদ।

তবে সব থেকে বেশি নজর ছিল সাকিবের দিকেই। গত অক্টোবরে নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে মাঠে ফিরেছেন সাকিব। তবে ব্যাটিং-বোলিংয়ে কিছুই করতে পারিনি বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে। তাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সাকিবের পারফরম্যান্স টা কেমন হয় দেখার অপেক্ষায় ছিলেন অনেকেই। ঘরোয়া ক্রিকেটে কিছু না করতে পারলেও পারলেও, আন্তর্জাতিক ম্যাচে নিজেকে প্রমাণ করেছেন।

উইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম স্পেলে ৭ ওভারে ২ মেডেনে ৮ রান খরচ করে নেন ৩ উইকেট। দ্বিতীয় স্পেলে ২ বল করে নেয় ১ উইকেট। এভাবেই রাঙিয়ে তুলেছেন নিজের প্রত্যাবর্তন ম্যাচটি বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *