ধর্ম

জান্নাতে যাওয়ার পথে বাধা সৃষ্টিকারী কাজ।

মানুষের শেষ ও চিরস্থায়ী বাসস্থান জান্নাত। দুনিয়ার চালমান এ জীবনই শেষ কথা নয়। এ জীবনের পরেই শুরু হবে পরকালের সীমাহীন চিরস্থায়ী জীবন। যে জীবনের শুরু আছে কিন্তু শেষ নেই। সে জীবনে যারা সফলকাম হবে তাদের জন্য রয়েছে চিরস্থায়ী জান্নাত, আর যারা ব্যর্থ হবে তাদের জন্য রয়েছে চিরস্থায়ী জাহান্নাম। দুনিয়াতে এমন কোন মানুষ খুঁজে পাওয়া যাবে না, যারা জান্নাতে যেতে চায় না। আল্লাহ তা'আলা মানুষকে জান্নাত লাভ ও জাহান্নাম থেকে মুক্তি সম্পর্কে সুস্পষ্ট বর্ণনা দিয়েছেন। জানিয়েছেন জান্নাত ও জাহান্নামের অন্তরায় কাজগুলো কি কি। আল্লাহ তা'আলা মানুষকে সব অন্যায় থেকে মুক্ত থেকে তার আনুগত্যের বিনিময়ে যেমন জান্নাত দেওয়ার অঙ্গীকার করেছেন। ঠিক কোন কাজ করলে জাহান্নাম সুনিশ্চিত তাও দিক-নির্দেশনা প্রদান করেছেন। আসুন জেনে নেই জান্নাতে যাওয়ার পথে বাধা সৃষ্টিকারী কাজগুলোর সংক্ষিপ্ত বিবরণ।

শিরোনাম

  1. আল্লাহর প্রতি ঈমান না আনা
  2. প্রতিবেশীর প্রতিবেশীর প্রতি সদয় না হওয়া
  3. অহংকারী ব্যক্তি
  4. পরনিন্দাকারী ও চোগলখোর ব্যক্তি
  5. আত্মহত্যাকারী
  6. আত্মীয়তার সম্পর্ক ছিন্নকারী
  7. হারাম ভক্ষণকারী
  8. উপকার করে খোটা দেয়া
  9. তাকদির (ভাগ্য) অস্বীকারকারী ও অবাধ্য সন্তান
  10. জ্যোতিশ, জাদুকর ও মাদক তথা নেশাকারী
  11. ঋণগ্রস্ত ব্যক্তি
  12. পুরুষ বেশধারী নারী ও দাইয়ুস

বিস্তারিত আলোচনা করা হলো:

১. আল্লাহর প্রতি ঈমান না আনা:- রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, 'ঈমানদার ব্যতীত কেউ জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবে না।' (বুখারী ও মুসলিম) তিনি আরও বলেন, 'ঈমান না আনা পর্যন্ত কেউ জান্নাতে প্রবেশ করবে না।' (মুসলিম)

২. প্রতিবেশীর প্রতি সদয় না হওয়া:- রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, 'যার অনিষ্ট থেকে তার প্রতিবেশী নিরাপদ থাকে না সে জান্নাতে প্রবেশ করবে না।' (মুসলিম)

৩. অহংকারী ব্যক্তি:- রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, 'যার অন্তরে অনু পরিমাণ অহংকার রয়েছে সে জান্নাতে প্রবেশ করবে না।' (মুসলিম)

৪. পরনিন্দাকারী ও চোগলখোর ব্যক্তি:- রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, 'চোগলখোর বা পরনিন্দাকারী ব্যক্তি জান্নাতে প্রবেশ করবে না।'(মুসলিম) তিনি আরও বলেন, 'কেয়ামতের দিন সবচেয়ে খারাপ লোকদের দলভুক্ত হিসেবে ঐ ব্যক্তিকে দেখতে পাবে যে, যে ছিল দুমুখো- যে একজনের কাছে এক কথা আরেক জনের কাছে ভিন্ন কথা নিয়ে হাজির হতো।' (মুসলিম)

৫. আত্মহত্যাকারী:- রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, 'যে ব্যক্তি নিজেকে পাহাড়ের ওপর থেকে নিজেকে নিক্ষেপ করে আত্মহত্যা করবে, সে জাহান্নামে যাবে। সেখানে (পরকালে) সব সময় সে ওইভাবে (দুনিয়ার মতো) নিজেকে নিক্ষেপ করতে থাকবে অনন্তকাল ধরে।' যে ব্যক্তি বিষপান করে আত্মহত্যা করবে, সে বিষ তার হাতে থাকবে। জাহান্নামের সব সময় সে ওইভাবে বিষপান করে নিজেকে মারতে থাকবে অনন্তকাল ধরে। যে ব্যক্তি কোনো ধারালো অস্ত্র দ্বারা আত্মহত্যা করেছে তার কাছে জাহান্নামের সে ধারালো অস্ত্র থাকবে, যার দ্বারা সে সব সময় সর্বদা নিজের পেটকে ফঁড়তে থাকবে।' (বুখারী ও মুসলিম)

৬. আত্মীয়তার সম্পর্ক ছিন্নকারী:- রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, 'আত্মীয়তার সম্পর্ক ছিন্নকারী ব্যক্তি জান্নাতে প্রবেশ করবে না।' (মুসলিম)

৭. হারাম ভক্ষণকারী:- রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, 'হারাম অর্থের মাধ্যমে (যে শরীর) মাংস বৃদ্ধি পেয়েছে তা জান্নাতে প্রবেশ করবে না।' অর্থাৎ যে ব্যাক্তি হারাম অর্থ ও অবৈধ উপার্জন দ্বারা দেহ গঠন (জীবিকা নির্বাহ) করেছে, জাহান্নামের আগুন তার প্রাপ্য।' (মিশকাত)

৮. উপকার করে খোটা দেয়:- রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, 'সে ব্যক্তি জান্নাতে প্রবেশ করবে, যে উপকার করে খোটা দেয়।' (নাসাঈ)

৯. তাকদির (ভাগ্য) অস্বীকারকারী ও অবাধ্য সন্তান:- রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, 'পিতা মাতার অবাধ্য সন্তান, মদ্যপায়ী এবং তাকদির অস্বীকারকারী জান্নাতে প্রবেশ করবে না।' (সিলসিলা)

১০. জ্যোতিশ, জাদুকর, মাদক তথা নেশাকারী:- রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, '৫ শ্রেণির মানুষ জান্নাতে প্রবেশ করবে না। (তারা হলো) মদ্যপায়ী, জাদুর বৈধতায় বিশ্বাসী, আত্মীয়তার সম্পর্ক ছিন্নকারী, চোগলখোর, এবং গণক তথা জ্যোতিশ ব্যক্তি।' (মুসনাদে আহমদ)

১১. ঋণগ্রস্ত ব্যক্তি:- রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কাছে কোন ঋণগ্রস্ত মৃতের লাশ (জানাযার জন্য) নিয়ে আসা হলে (তিনি) জিজ্ঞাসা করতেন, 'সে ঋণ পরিশোধের ব্যবস্থা করেছে কিনা? যদি বলা হতো করেছে, তবে জানাযা পড়াতেন। অন্যথায় (সাহাবীদেরকে) বলতেন- তোমরা তোমাদের সাথীর জানাজা পড়ে নাও।' (কিন্তু তিনি নিজে তাতে অংশগ্রহণ করতেন না)।' (মুসলিম) অন্য হাদিসে এসেছে, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ঋণ ছাড়া শহীদের সব গোনাহ ক্ষমা করে দেয়া হবে।' (মুসলিম)

১২. পুরুষ বেশধারী নারী ও দাইয়ুস:- রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন, ৩ শ্রেণির লোক জান্নাতে প্রবেশ করবে না। তারা হলো- পিতা-মাতার অবাধ্য সন্তান, দাইয়ুস ও পুরুষ বেশধারী নারী।' (সহিহ জামে)

আল্লাহ তা'য়ালা মুসলিম উম্মাহকে খারাপ কাজগুলো থেকে বিরত থাকার তওফিক দান করুন। আল্লাহ বিধান যথাযথ বাস্তবায়ন করে জান্নাত লাভের তওফিক দান করুন।আমিন।

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *