ধর্ম

সহবাসের পর মেয়েদের জন্য গোসল না করে গৃহস্থলী কাজ ও শিশুদের দুধ পান করা বিধান।

সহবাসের পরে বিশেষ করে মেয়েদের কয়েকটি কাজ করা নিষেধ।

কি কি কাজ করা নিষেধ ?

সহবাসের পর বিশেষ করে মেয়েদের ৫ টি কাজ করা একদমই নিষেধ। যথা:

১. সহবাসের পর কখনো নামাজ কবুল হয় না। কারণ অপবিত্রতা অবস্থায় মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের দরবারে কখনো নামাজ কবুল হয় না, অর্থাৎ সহবাসের পর নামাজ পড়া নিষেধ।

২. সহবাসের পর তাওয়াফ করা নিষেধ

৩. অপবিত্র অবস্থায় অর্থাৎ সহবাসের পর মসজিদে অবস্থান করা নিষেধ।

৪. সহবাসের পর কুরআন স্পর্শ করা নিষেধ।

. সর্বশেষ কোরআন তেলাওয়াত অর্থাৎ কোরআন পড়া নিষেধ।

কি কি কাজ জায়েজ আছে?

আমাদের সমাজ এখন এমন হয়ে গেছে বিশেষ করে মেয়েদের ওপর কঠোরতা সবথেকে বেশি। সহবাসের পরে বাড়ির অর্থাৎ গৃহস্থলী কোন কাজ করা যাবে না। শিশুর দুধ খাওয়ানো যাবে না ইত্যাদি কাজের উপর বিশ্বাস। অনেক সময় দেখা যায় একটি শিশু দুধের জন্য কান্নাকাটি করছে কিন্তু তার মা তাকে দুধ দিচ্ছে না । কারণ তার বাড়ির অনেকে ফতোয়া দিয়ে রাখে সহবাসের পরে শিশুকে দুধ পান করানো জায়েজ না। কিন্তু উপরে যে পাঁচটি কাজ করা নিষেধ আছে তার মধ্যে কিন্তু এই কাজগুলো নাই। অতএব এগুলো করা জায়েজ আছে।সহবাস করে রোজা রাখা পর্যন্ত জায়েজ আছে তাহলে আপনি কিভাবে শিশুকে দুধ পান না করে থাকতে পারেন বা গৃহস্থলী কোন কাজ না করে থাকতে পারেন।

সহবাস করার পর ফরজ গোসল করতে যদি একটু দেরি হয়। তাহলে অযু করে নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে । সহি মুসলিম শরীফের একটি হাদীস মহানবী (সাঃ) বলেছেন সহবাসের পর যদি কেউ ঘুমাতে চায় বা শুতে চাই তাহলে তাকে অযু করে নিতে । অযু করে নেয়া উত্তম তবে অযু না করলেও এতে কোন গুনা হবে না

ট্যাগ

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *