সর্বশেষসারাদেশ

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের পর ২০২১ সালে ক্ষতির মুখে বাংলাদেশ।

আন্তর্জাতিক বাজারে স্যাটেলাইট সেবা সহজলভ্য হয়েছে আগের তুলনায় অনেক বেশি , তাই বিদেশে সঠিক দাম পাওয়া যাচ্ছে না বঙ্গবন্ধু ১ স্যাটেলাইটের ।

আর তাই বিকল্প পদ্ধতি হিসেবে দেশের মধ্যেই বাজার তৈরি চেষ্টা চালাচ্ছে বি এস সি এল । এক্ষেত্রে দেশের বিশেষজ্ঞদের ভাষ্যমতে দেশের বাজারের উপর পুরোপুরি নির্ভর করা একদমই ঠিক হবে না ।

গত ২০১৮ সালের ১১ ই মে আনুমানিক রাত ২:১৪ এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের কানাডায় স্পেস সেন্টার থেকে ফ্যালকন নাইন নামক রকেটের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ১সফল ভাবে উৎক্ষেপণ করা হয় , যার মধ্য দিয়ে পিষে ৫৬ তম স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ কারী দেশের খাতায় নাম লেখায় বাংলাদেশ ।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ১ এর নিয়ন্ত্রণ পাওয়ার পর থেকেই দেশের পাশাপাশি বিদেশে সেবা বিক্রির উদ্যোগ গ্রহণ করে বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড বিএসসিএল , এবং পরামর্শের জন্য থাইল্যান্ড ভিত্তিক একটি কোম্পানি নিয়োগ করা হলেও তাতে উল্লেখযোগ্য কোনো সাফল্যের দেখা পাওয়া যায়নি ।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ১ এর সেবা গ্রহণের জন্য নেপাল ও ফিলিপাইন আগ্রহ দেখালেও দাম কম বলাই রাজি হয়নি বি এস সি এল । এছাড়াও নেপালের সঙ্গে এখনো দরকষাকষি চলছে , বিএসসিএল বলছে আন্তর্জাতিক বাজারে স্যাটেলাইট সেবার দাম সহজলভ্য হওয়ায় কাঙ্ক্ষিত দাম পাওয়া যাচ্ছে না ।

২০১২ সালের দিকে উৎক্ষেপিত স্যাটেলাইটের সংখ্যা ছিল অনেক কম তাই তখন স্যাটেলাইটের ব্যান্ডউইথের মূল্য ছিল অনেক , কিন্তু সম্প্রতি বিভিন্ন জাতি অনেক স্যাটেলাইট মহাকাশে উৎক্ষেপণ করেছে যার ফলে স্যাটেলাইট ব্যান্ডউইথের দাম আগের তুলনায় অনেক কমে গেছে ।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন স্যাটেলাইট এর বয়স সীমা নির্দিষ্ট হয় এর ট্রান্সপন্ডার ফেলে রাখার কোন সুযোগ নেই , তাই দ্রুত বিপণন এর কোন বিকল্প নেই ।

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে ১৪ টি cu-band এবং ২৮ টি ku-band রয়েছে যার মধ্যে বিক্রি হয়েছে ৭ টি cu-band এবং ৭টি ku-band .স্যাটেলাইটের মেয়াদ নিদৃষ্ট হওয়ায় বাকি ট্রান্সপোর্টের গুলো যদি বিক্রি করা না যায় তাহলে বড় আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়বে বাংলাদেশ ।

ট্যাগ

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *