আন্তর্জাতিক

যে কারণে আটক হলেন মিয়ানমারের প্রধানমন্ত্রী উইং মিন্ট ও অং সান সুচি ?

মিয়ানমারের অং সান সু চি এবং অন্যান্য রাজনৈতিক নেতাদের গ্রেফতারের পরক্ষণে দেশটিতে এক বছরের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করেছে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী।বিতর্কিত নভেম্বরের নির্বাচন নিয়ে বেসামরিক সরকার ও সামরিক বাহিনীর মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হওয়ার পর এই অভ্যুত্থান ঘটলো।

এবার মিয়ানমারের ( বার্মা নামেও পরিচিত ) সেনাবাহিনীর হাতে আটক হলেন অং সান সুচি ,বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে দেশটির প্রধানমন্ত্রী উইং মিন্ট সহ দলের বেশ কিছু কেন্দ্রীয় নেতারাও আটক হয়েছেন । এরই ফলপ্রেক্ষিতে রাজধানী নেপিদো সহ বেশ কিছু অঞ্চলে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে । সুচির দলের সমর্থকদের শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছে কেন্দ্রীয় ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি ।

এর আগে ১৯৯০ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত বেশ কয়েক দফায় দীর্ঘ ১৫ বছর পর্যন্ত সুচি কে গৃহবন্দি করে রাখা হয় । এরপর ২০১৫ সালে দীর্ঘ ২৫ বছর পর সরাসরি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে বিপুল ভোটে জয়লাভ করে অং সান সুচি ।এরপর থেকেই সেনাবাহিনীর সমর্থন নিয়ে দেশ পরিচালনা করে আসছিল অংসান সুচির দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি । কিন্তু গত ৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে অংশগ্রহণ করলেও তা মানতে নারাজ বিরোধী দল। এরই প্রেক্ষিতে সেনাবাহিনী সুচিকে আটক করে ।

পুনরায় সেনা অভ্যুত্থানের আশংকা দেখা দিল মিয়ানমারে । দলটির অধিবেশন শুরুর দিনে দেখা দিল এমন বিরোধ । কালের পরিক্রমায় বহু বছর পরে পুনরায় আটক হলেন অং সান সুচি । দেশটিতে বিরোধ মোকাবেলার জন্য রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চলে করা হয়েছে সেনা মোতায়েন।সুচিকে গ্রেপ্তারের পরপরই দেশটিতে ইন্টারনেট সেবা ও দেশটির জাতীয় টেলিভিশন সম্প্রচার বন্ধ করে দেয় দেশটির সেনাবাহিনী ।দৃষ্টিতে ৮ নভেম্বর নির্বাচনের পরপরই বেসামরিক দলের সঙ্গে সেনাবাহিনীর উত্তেজনা ক্রমশ অবনতির দিকে অগ্রগতি হয়। গত ৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সুচির দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলেও তা অস্বীকার করেছে সেনাবাহিনী সমর্থিত দল ইউনিয়ন সলিডারিটি এন্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি ।

সুচিকে গ্রেপ্তারের পরক্ষনেই দেশটির রাজধানী নাইপিদো ইয়াঙ্গুনের রাস্তায় মোতায়েন রয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী । এছাড়াও গ্রেপ্তারের পর সোমবারের পার্লামেন্ট অধিবেশন স্থগিত করা হয়েছে ।

ট্যাগ

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *