আন্তর্জাতিক

নতুন ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি , যুক্তরাষ্ট্রকে উড়িয়ে দেবে উত্তর কোরিয়া ।

কিম জং উন নামটা শুনিনি এমন লোক খুঁজে পাওয়া দুষ্কর।পৃথিবীর বুকে পাগলাটে নেতা হিসেবে পরিচিত উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন । পারমাণবিক শক্তিধর ও অস্ত্রেসস্ত্রে সশস্ত্র দেশটি মাঝেমধ্যেই দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করে থাকেন ।

উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি নিয়ে পৃথিবীর বুকে আলোচনা-সমালোচনা সব সময় যেন বিরাজমান , দেশটির সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন কখন কি করে বসেন তা নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রধান মন্ত্রীদের কপালে চিন্তার ভাঁজ সবসময় থাকে ।

উত্তর কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে শান্তি বজায় রাখতে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কিম জং উন এর সাথে একাধিকবার শান্তির পরামর্শ করেন । সেসময় উত্তর কোরিয়ার পিয়ংইয়ং প্রতিশ্রুতি দেয় যে তারা অস্ত্র কর্মসূচি বন্ধ করে দেবে । এবং তারই ফলপ্রেক্ষিতে উত্তর কোরিয়ার কিছু অস্ত্র গবেষণা কেন্দ্র কে ঘুরিয়ে দেয়া হয়।

কিন্তু নতুন করে আবার অস্ত্র কর্মসূচি চালাতে চাই উত্তর কোরিয়া ।উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন অস্ত্র কর্মসূচি পূর্বের তুলনায় আরও জোরদার করার হুঁশিয়ারি দিয়েছে ।উত্তর কোরিয়ার ওয়ার্কার্স পার্টির এক সম্মেলনে সমাপ্তি ঘোষণায় তিনি এ বক্তব্য রাখেন ।কিম এমন সময় এ বক্তব্য দিলেন যখন যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক পালের নতুন করে হাওয়া লেগেছে ।

অস্ত্র কর্মসূচি বিষয়ে কিম জং উন বলেন:-আমাদের যেমন পারমাণবিক যুদ্ধ ও প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাও জোরদার করতে হবে ঠিক তেমনি সবচেয়ে শক্তিশালী সামরিক বাহিনী গঠনের ক্ষেত্রে যা যা করা‌ প্রয়োজন তাই করতে হবে।

তার আলোচনা শুরু থেকেই অস্ত্র কর্মসূচি নিয়ে বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন তিনি , তিনি বক্তব্য রাখেন উত্তর কোরিয়ার উন্নয়নের সবচেয়ে বড় বাধা হিসেবে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র । এছাড়া তাদের প্রথম শত্রু হিসেবে কাজ করে থাকে মার্কিনরা ।

জানা গেছে অতি শীঘ্রই উত্তর কোরিয়া পারমাণবিক সাবমেরিন তৈরীর পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছে।এবং এ-সংক্রান্ত যে-সকল নীতিমালা রয়েছে সে সকল নীতিমালাতেও অনেক ধরনের পরিবর্তন আনতে চলেছে উত্তর কোরিয়ায় । অনেক বিশেষজ্ঞরা বলছেন কিংয়ের ধরনের পদক্ষেপ নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্য ।

ট্যাগ

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *