আন্তর্জাতিক

জেফ বেজোস কে পিছনে ফেলে বর্তমান বিশ্বের সেরা ধনী ইলন মাক্স।

প্রযুক্তি ও ব্যবসার খোঁজ খবর রাখনে অথচ ইলন মাস্কের নাম শোনেননি  – এমন লোক বোধহয় একজন কেউ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। যাকে নিউ ইর্য়ক টাইমস ধাতব স্যুটবিহীন আয়রনম্যান ” বলে ঘোষণা করছে সেই ইলন মাস্ক এর কথাই আজ আমরা জানবো। আজ আমরা জানবো এই স্যুটবিহীন আয়রনম্যান এর জীবনের পরতে পরতে থাকা সাফল্য, ও স্বপ্নের কাহিনী।

অনলাইনে পণ্য কেনা বেচার প্রতিষ্ঠান অ্যামাজনের কথা আমরা সকলেই কম বেশি জানি, আর এই অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও জেফ বেজোস কে পেছনে ফেলে বিশ্বের সেরা ধনীর বইয়ে নাম লিখিয়েছেন ৪৯ বছর বয়সি এই প্রযুক্তি ব্যবসায়ী।সম্প্রতি টেসলার শেয়ার মূল্য ৬ শতাংশ বৃদ্ধি পাওয়ায় ম্যাক্সের সম্পত্তির পরিমাণ ১০ বিলিয়ন ডলার সম্প্রসারিত হয়েছে , যার ফলে জেফ বেজোস কে পেছনে ফেলে বর্তমান বিশ্বের সেরা ধনী এখন ইলন‌ মাক্স,গতবছরের থেকে ইলন মাস্কের সম্পত্তি ১৫০ বিলিয়ন বৃদ্ধি পেয়েছে এত দ্রুত সম্পত্তি বৃদ্ধি পাওয়ার নজির বিশ্বে এই প্রথম তার সম্পদের বর্তমান মূল্য ১৯১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার,যেখানে গত তিন বছরের বিশ্বের শীর্ষ ধনী জেফ বেজোসের সম্পদের বর্তমান আর্থিক মূল্য ১৮৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার,এবং ১৩২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার নিয়ে তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে বিল গেটস।

ইলন মাক্স এর সম্পর্কে কিছু কথা:

  • তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার ছেলে: ইলন মাক্স ১৯৭১ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেটোরিয়াতে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা দক্ষিণ আফ্রিকান ও মাতা কানাডিয়ান, তার পুরো নাম ইলন রীভ মাক্স।
  • অসমাপ্ত শিক্ষাজীবন: ১৯৮৯ সালে সতের বছর বয়সে তিনি কুইন্স ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি এবং বাধ্যতামূলক সামরিক দায়িত্ব এড়ানোর জন্য দক্ষিন আফ্রিকা থেকে কানাডায় চলে যান, এবং সেখানে স্নাতকোত্তর শেষে পি এইচ ডি এর জন্য যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় সুযোগ পান। কিন্তু অর্থ নেশা তাকে পেয়ে বসেছিল যার জন্য তিনি পিএইচডি শেষ করেননি মাক্সের পড়ালেখার শেষ সিঁড়ি টায় আর পা রাখা হয়ে উঠে নি ।
  • স্পেস এক্স প্রতিষ্ঠা: ২০০২ সালে মাস্ক বানিজ্যিক মহাকাশ ভ্রমণ সেবা প্রদানের উদ্দেশ্যে মহাকাশযান তৈরী করার জন্য স্পেস এক্স কোম্পানী প্রতিষ্ঠা করেন।রকেটের মাধ্যমে মহাকাশে পণ্য সরবরাহের বিষয়টি এবং মার্কসের মাথায় বহু আগে থেকে ছিল, রাশিয়ায় রকেট কিনতে গিয়ে তিনি ভাবলেন কম খরচে রকেট বানাবেন, যার বাস্তবায়িত রূপ স্পেস এক্স। এছাড়াও তিনি পেপাল, দা বোরিং কোম্পানি, হাইপার-লুপ এর প্রতিষ্ঠাতা।
  • বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ১: বর্তমানে বাংলাদেশে যে স্যাটেলাইট টি ব্যবহার করছে  অর্থাৎ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ১ এটি ইলন মাস্কের কোম্পানি স্পেস এক্স এর ফ্যালকন ৯ নামক রকেট এর দ্বারা ২০১৮ সালের মে মাসে মহাকাশে প্রেরণ করা হয়।
ট্যাগ

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *