স্বাস্থ্য

থানকুনি পাতা শরীরের যেসব উপকার করে

যত্ন নিয়ে চাষ করতে হয়, এমন নয়। অনেকটা অনাদরেই বেড়ে ওঠে এই থানকুনি পাতা। কিন্তু এর উপকারিতা বেশ দামি। এখন অবশ্যই চাষও হচ্ছে অনেক জায়গায়। তেতো স্বাদের এই পাতা আমাদের শরীরে অনেক উপকার বয়ে আনে। মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়াতেও এই পাতা বাটা খুবই উপকারী।

ক্ষত সারাতে।

শরীরের কোথাও কেটে গেলে রক্তপাত থামাতে ব্যবহার করতে পারেন থানকুনির পাতা। থানকুনির পাতা বেটে আক্রান্ত স্থানে লাগালে ব্যথা কম হবে আর রক্ত পড়াও বন্ধ হয়ে যাবে। এমনকি ক্ষত থেকে সংক্রমনের আশঙ্কাও থাকে না।

শরীরে রক্ত প্রবাহ ঠিক থাকে।

অনেকের থ্রম্বোসিসের সমস্যা থাকে। এছাড়াও অনেকের দেহে অন্যান্য শারীরিক সমস্যার কারণে রক্ত প্রবাহে সমস্যা হয়। থানকুনি পাতার রস খেলে রক্ত শুদ্ধ থাকে। ফলে শরীরের প্রতি কোষে অক্সিজেন সমৃদ্ধ রক্ত পৌঁছে যায়। ফলে অনেক সমস্যা দূর হয়।

আলসার দূর করে।

পেটের যে কোন রোগের জন্য থানকুনির পাতা বেশ উপকারী। আমাশয় থেকে আলসার সেরে যায় এই পাতার গুণেই। আর নিয়মিত থানকুনি পাতা খেলে হজমের সমস্যা থেকে মুক্তি মেলে।

মানসিক অবসাদ দূর করে।

মানসিক অবসাদে ভুলগে তা দূর করার জন্য খুবই উপকারী একটি ঔষধ হলো থানকুনি পাতার রস। থানকুনি স্ট্রোক হরমোনের ক্ষরণ নিয়ন্ত্রণ করে। হলে মানসিক চাপ ও অস্থিরতা দুইটাই কমে যায়। এর ফলে অ্যাংজাইটির আশঙ্কাও কমে যায়।

মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়ে।

নিয়মিত থানকুনি পাতা খেতে শুরু করলে শরীরে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ট্রিটারপেনস নামের একটি উপাদানের মাত্রা বাড়তে শুরু করে, যে কারণে ব্রেন সেল ভালোভাবে কাজ করতে পারে। স্মৃতিশক্তির উন্নতিতো ঘটে বটেই, সেইসঙ্গে বুদ্ধির ধারেও বাড়ে চোখে পড়ার মতো।

ঘুম ভালো হয়।

ঘুম না আসার সমস্যা রয়েছে অনেকেরই। আপনারাও এমন সমস্যা থাকলে খেতে পারেন থানকুনি পাতা ভেজানো পানি। এতে স্নায়ু শিথিল হবে। ঘুমও হবে দারুন।

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *