স্বাস্থ্য

এলার্জি রোগের লক্ষণ ও প্রতিকার ?

এলার্জি আসলে খুবই সাধারন একটি রোগের নাম , এটি হচ্ছে কোন বস্তু বা খাবারের প্রতি আমাদের দেহের প্রতিক্রিয়া বিশেষ । এই এলার্জির সাধারণত শিশুদের শরীরে বেশি দেখা দিয়ে থাকে , তবে ধীরে ধীরে বয়স বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে সাথে এই রোগটি নিরাময় হতে থাকে তবে কিছু কিছু মানুষের সারা জীবনের জন্য এই এলার্জি থেকে যায় ।

World allergy organisation এর ২০১৮ সালের একটি তথ্য মতে বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ৩০ শতাংশের বেশি মানুষ এলার্জি অথবা এ সংক্রান্ত রোগে ভুগছে ।

মানুষের শরীরে এলার্জি কেন হয়ে থাকে?

প্রত্যেক মানুষের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা রয়েছে । আর এই সকল রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যখন সঠিকভাবে কাজ করতে সক্ষম হয় না অথবা আমাদের শরীরের জন্য ক্ষতিকর নয় এমন সকল বিষয়ের প্রতি তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখাতে শুরু করে তখনই একজন মানুষের শরীরে এলার্জি সমস্যা দেখা দেয় ।

অর্থাৎ আমরা যে সকল খাবার গ্রহণ করে থাকি অথবা যে সকল বস্তুর সংস্পর্শে এসে থাকি এসকল বিষয় আমাদের শরীরে বিদ্যমান রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক সময় সঠিকভাবে বুঝে উঠতে পারেনা , আর এ সকল বস্তু বা খাবারের প্রতি তারা তখন একপ্রকার প্রতিক্রিয়া জ্ঞাপন করে আর এটি হচ্ছে অ্যালার্জি ।

এলার্জি হলে কি কি উপসর্গ দেখা দিতে পারে?

  • অতিরিক্ত হাঁচি হওয়া ।
  • শরীরের বিভিন্ন স্থানে চুলকানি ।
  • শ্বাসকষ্ট দেখা দেওয়া ।
  • সর্দি ।
  • নাক বন্ধ হয়ে যাওয়া।
  • শ্বাস-প্রশ্বাস চলাকালীন বুকে শব্দ হওয়া ।
  • শরীরের বিভিন্ন স্থানে লাল হওয়া অথবা ফুলে যাওয়া ।

অধিকাংশ মানুষের ক্ষেত্রে এ এলার্জি সামান্য ব্যাঘাত করালেও কিছু কিছু মানুষের ক্ষেত্রে এটি তার জীবনে দুর্বিষহ বেদনা বয়ে আনে । মাঝে মাঝে এলার্জির জন্য শরীরে মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে এটিকে বৈজ্ঞানিক ভাষায় এ্যালেক্সিস বলা হয় ।

এলার্জি এর দুর্বিষহ বেদনা থেকে পরিত্রাণের উপায় কী ?

১. প্রথমে আপনার যে সকল খাবারের প্রতি এলার্জি রয়েছে সে সকল খাবার থেকে দূরে থাকাই শ্রেয় হবে ।

২. যদি কারো জীবজন্তুকে অ্যালার্জি থাকে তাহলে জীবজন্তুকে যথা সম্ভব হয় বাইরে রাখুন এবং তাদেরকে নিয়মিত গোসল করান ।

৩. যাদের পরাগরেণু তে এলার্জি রয়েছে তারা যতসম্ভব সবুজ ঘাস জাতীয় স্থান এগিয়ে চলতে হবে ।

৪. যাদের ধূলিকণা তে আলার্জি রয়েছে তারা ঘরের বাইরে অবস্থান করলে মাক্স ব্যবহার করুন ।

৫. কিছু নিম পাতা সংগ্রহ করুন , অতঃপর তা ভালো করে রোদে শুকিয়ে নিন ,তারপর তারা সুন্দরভাবে পিসে গুড়ো করে একটা পরিষ্কার পাত্রে রাখুন , প্রতিদিন সকাল দুপুর রাত্রি সেবন করুন ইনশাল্লাহ ভালো ফল পাবেন ।

যাদের শরীরে এলার্জি আছে তারা নিয়মিত লেবু খেতে পারেন অথবা যেখানে এলার্জির কারণে ফুলে গেছে সেখানে ব্যবহার করতে পারেন লেবূ চুলকানি রোধ করতে সহায়তা করে ।

ট্যাগ

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *