স্বাস্থ্য

করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হবে দু'মাস পর।

বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের টিকা প্রদান করা হচ্ছে। বাংলাদেশেও পিছিয়ে নেই, ইতিমধ্যে প্রথম ডোজ টিকা প্রদান করা হয়েছে। কিন্তু করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়ার কথা ছিল এক মাস পর। এই সময় সীমা পরিবর্তন করা হয়েছে, করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হবে আট সপ্তাহ পর।

জাতীয় পরামর্শ কমিটির পরামর্শে করোনা টিকার ডোজের সময়সীমা পরিবর্তন আনা হয়েছে। প্রথম এবং দ্বিতীয় ডোজের মধ্যকার সময়সীমা হবে আট সপ্তাহ। আজ সোমবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম এ কথা বলেন।

এই নিয়ে একাধিকবার প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজের সময়সীমা পরিবর্তন করলো স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কোভিড-১৯ টিকাদান পরিচালনার সময় বলেছিল, দ্বিতীয় ডোজের পার্থক্য হবে চার সপ্তাহ। কিন্তু সেটি পরিবর্তন করে করা হয়েছে আট সপ্তাহ। কিন্তু টিকাদান কর্মসূচি শুরু হওয়ার আগে ৬ ফেব্রুয়ারি সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছিল, দ্বিতীয় ডোজের পার্থক্য হবে চার সপ্তাহ।

ইতিমধ্যে ৯ লাখের বেশি মানুষ প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছে। এখন স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজের পার্থক্য হবে আট সপ্তাহ।

ইতিমধ্যে যারা প্রথম ডোজ টিকা নিয়েছে তাদেরকে বলা হয়েছিল চার সপ্তাহ পর দ্বিতীয় ডোজ দেওয়া হবে, কিন্তু এখন তাঁরা কি করবে—এই প্রশ্নের উত্তরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বলেন, তাদের মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে।

কয়েকদিন মৃত্যু ও সংক্রমণ হার কমলেও, আজ সোমবার আবারো মৃত্যু ও সংক্রমণ হার বৃদ্ধি পেয়েছে। আজ করোনা ভাইরাসে মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের এবং নতুন সংক্রমণ হচ্ছে ৪৪৬ জনের। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়েছে।

ট্যাগ

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *