সারাদেশ

পুনরায় এক নাম্বর বাংলাদেশ, কেন, কিভাবে?

বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে সবাই এক নাম্বার হতে চাই, আজ বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশ এক নম্বর স্থান অর্জন করেছে, তবে দুঃখের বিষয় একটাই যে সাফল্য টা কোন গৌরবের নয়, ২০২১ এর বিশ্ব পরিসংখ্যান বলছে পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি দূষিত শহর টি হচ্ছে বাংলাদেশের ঢাকা শহর।

এই ধরার কোনো শহর শান্তির জন্য, কোনোটা আবার প্রসাদ-ময় ভবনের জন্য বিখ্যাত হয়। আর বর্তমান আমাদের রাজধানী ঢাকা বায়ুদূষণের নিমিত্তে সমালোচিত। যুক্তরাষ্ট্রের পরিবেশ সংরক্ষণবিষয়ক সংস্থা ইপিএর সর্বশেষ প্রতিবেদনে বিশ্বে সবচেয়ে দূষিত বায়ুর দেশের মধ্যে বাংলাদেশের ডাকার অবস্থান প্রথম।

করোনা মহামারীর ভয়াল থাবা তে পরিবেশ যেন একটু স্বস্তির নিশ্বাস ছেড়ে ছিল, করোনার কারণে বিভিন্ন দেশের বেশ কিছু বৃহৎ আকার কলকারখানা বন্ধ থাকায় কারখানা হতে কোন বর্জ্য পদার্থ,কার্বন ডাই অক্সাইড ইত্যাদি ক্ষতিকারক পদার্থ নিঃসরণ না হওয়ায় পরিবেশ কিছুটা সুস্থ হয়ে উঠতে শুরু করেছিল, এছাড়াও করোনাই পুরো বিশ্ব লকডাউন থাকায় পথে-ঘাটে গাড়ি চলাচল ব্যাপক আকারের হ্রাস পায়। যার ফলে প্রাণবন্ত হতে থাকে প্রকৃতি, বর্তমান সময়ে করোনা পরিস্থিতির কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আশায় পুরো পৃথিবী এখন লকডাউন এর কঠোর নিয়ম থেকে সরে আসতে শুরু করেছে যার ফলে আমার বিধ্বস্ত ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে প্রকৃতি।

ঢাকা শহরকে কারখানার ধোঁয়া ছাড়াও ইটভাটা ও গাড়ির ধোঁয়া পুরো শহরের বাতাসকে বিষময় করে তুলছে।

আপনাকে যদি ঢাকা শহরের কথা চিন্তা করতে বলা হয় তাহলে আপনার মনে কি আসবে? নিশ্চয় একটি যানজটময় জনবহুল শহর? বিশেষ করে ধুলাবালি দ্বারা দূষিত হয়ে আছে পুরো ঢাকা শহর, আরে দূষণেরই পুরস্কার পেল পুনরায়, বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে বেশি দূষিত শহর এখন ঢাকা।

বর্তমান বাংলাদেশ সরকার ঢাকা শহরকে আধুনিকায়ন করতে পুরোপুরি চেষ্টা চালাচ্ছে, যুক্ত হতে চলেছে মেট্রোরেল সহ নানা ধরনের প্রযুক্তি, ফলে আমরা আশা করতেই পারে একটি আধুনিক ঢাকার।

ট্যাগ

আরও পড়তে পারেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *